মাগুরায় গৃহবধূ নির্যাতন,আহত ৪

মাগুরা সদর

 

মাগুরা সংবাদ:

গত ২৮ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ৯ টার দিকে মাগুরার দরিশলই গ্রামের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী চক্র চার বছর আগের একটি গাছ কাটা ঘটনা নিয়ে অতর্কিতভাবে শফিকুল ইসলামের পুরো পরিবারের উপর পৈশাচিক হামলা চালায়। এতে শফিকুলের স্ত্রী মীরা (৩৫) মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন। দুই সন্তানের জননী এই গৃহবধূকে রামদা দিয়ে কোপানো হয়েছে তার মাথার দুপাশে অনেকগুলো সেলাই করা হয়েছে , দুটি দাঁত ভেঙে ফেলেছে এবং ইট দিয়ে হাত ও পিঠে আঘাত করে থেঁতলে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে গৃহবধূ মিরা মাগুরা সদর হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় অসহ্য যন্ত্রণায় ছটফট করছেন। অন্যদিকে একই হাসপাতালে নিচের তলায় মীরার স্বামী শফিকুল ইসলাম (৪০), পিতা: মনতাজ মোল্লা উক্ত সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত অবস্থায় ভর্তি হয়ে আছেন, তারও মাথায় রামদা দিয়ে কোপানো হয়েছে, একাধিক সেলাই । একইভাবে আহত করা হয়েছে শফিকুল ইসলামের ছেলে মিরাজ হোসেন (১৯) ও রিয়াজ হোসেন (১৬)কে। শফিকুল ইসলাম জানান আমার পুরো পরিবারকে হত্যা করার উদ্দেশ্যেই মূলত প্রতিবেশী নাজমুল ও সাহেব আলী পিতা: রজব আলী ও রফিকুল পিতা: ওসমান মোল্লা এই হামলা চালায় এবং পরবর্তীতে ঘরের ভিতরে আটকে রাখে, পরে পুলিশ এসে তালা ভেঙে তাদের উদ্ধার করে। শফিকুল ইসলাম আরও জানান এই সন্ত্রাসীরা মাঝেমধ্যেই বিভিন্ন তালবাহানা ও সামাজিক দলাদলির কারণে তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এর আগেও শফিকুলের পরিবারের উপর হামলা হয়েছিল। এ হামলায় শুধু তারা শারীরিক ভাবেই আহত হননি, গৃহবধূ মীরার স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ ৫০০০ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে এবং তাদের ব্যবহার্য মোটরসাইকেল মারাত্মকভাবে ভাঙচুর করেছে। শফিকুল ইসলাম মাগুরা প্রশাসনের কাছে তাদের জানমালের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন ও এই বর্বরোচিত হামলার বিচার চেয়েছেন। এ ব্যাপারে শালিখা থানার ওসি জানান আমাদের কাছে মামলা করতে এলে আমরা মামলা গ্রহণ করতে প্রস্তুত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *