মাগুরায় সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসার ওষুধ নেই

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদ:

মাগুরায় গত ১১ জুলাই শালিখা উপজেলায় একজন ও একই সপ্তাহে শ্রীপুরে আর একজনের সাপের কামড়ে মৃত্যু হয়েছে। অনেক সময়ে হাসপাতালে সাপে কামড়ানো রোগীর চিকিৎসার ওষুধ (অ্যান্টিভেনাম) শেষ হয়ে যাওয়ায় হাসপাতাল থেকে প্রয়োজনীয় সেবা দেওয়া যাচ্ছে না। সাপের কামড়ের ওষুধ বাইরে থেকে সংগ্রহ করতে হলে ৮-১০ হাজার টাকা খরচ হয়। কিন্তু এত টাকা জোগাড় করার সামর্থ্য অনেকের নেই ।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালে সাপে কামড়ানো রোগীদের চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম অনেক আগে থেকে শুরু হয়েছে । সাপে কামড়ানো রোগীদের জন্য উন্নত চিকিৎসা রয়েছে, তাই ঝাড়ফুঁকের জন্য সময় নষ্ট না করে দ্রুত হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার লক্ষ্যে মানুষের মধ্যে সচেতনতা আনতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়। এর মধ্যে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী, জনপ্রতিনিধি ও গণমাধ্যমের কর্মীদের নিয়ে সাপের বিষ প্রতিষেধক উন্নত ব্যবস্থাপনার ওপর বৈজ্ঞানিক কর্মশালার আয়োজনসহ প্রতিটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ‘আর নয় ভয়, ওষুধ করেছে সাপের বিষকে জয়’ স্লোগানসংবলিত পোস্টারিং করা হয়।

বাংলাদেশে ৮০ থেকে ১২০ প্রজাতির সাপ রয়েছে। এর মধ্যে কোবরা, কিং কোবরা, কেউটে, রাসেল ভাইপার—এই চার প্রজাতির বিষধর সাপে কামড়ানো রোগী হাসপাতাল থেকে সেবা নিয়ে থাকে। দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসা দিয়ে রোগীকে সুস্থ করা সম্ভব। আর এর জন্য হাসপাতালে পর্যাপ্ত সাপের বিষ প্রতিষেধক অ্যান্টিভেনাম সরবরাহ থাকতে হবে।
সদর হাসপাতালের আরএমও ডাক্তার বিকাশ কুমার সিকদার মাগুরা সংবাদকে জানান, সাপে কামড়ানোর ওষুধ অ্যান্টিভেনাম শেষ হয়ে গেছে । হাসপাতালে ওষুধ সরবরাহের জন্য কেন্দ্রীয় ঔষাধাগারে যোগাযোগ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *