সাইফুজ্জামান শিখরের নামে ভুয়া অ্যাকাউন্ট: সাবরিনাকে বাঁচাতে..

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদ :

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের পরীক্ষা ছাড়াই ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত জেকেজির চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীকে বর্তমান সঙ্কট থেকে উদ্ধারের বিনিময়ে অর্থ দাবি করেছিলেন রেজওয়ানুল হক নামে এক যুবক। অনলাইনে প্রতারণার অভিযোগে মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিকেলে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

বুধবার (১৫ জুলাই) দুপুরে র‍্যাব-১৩ এর র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও কোম্পানি কমান্ডার মো. হাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

র‍্যাব জানায়, প্রতারক রেজওয়ানুল দীর্ঘদিন ধরে ফেসবুকে সংসদ সদস্য, সচিবসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলে প্রতারণা করে আসছিলো।

র‍্যাব কর্মকর্তা হাফিজুর বলেন, মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরের নামে ভূয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে দীর্ঘদিন ধরে সে প্রতারণা করছিলো। মেসেঞ্জারের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ের নেতা-নেত্রীদের বিভিন্ন কমিটিতে পদ পাইয়ে দেওয়া, মামলা থেকে অব্যাহতি, ত্রাণের অনুমোদন পাইয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন সুবিধার নিশ্চয়তা দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করত সে। টাকা পাঠানোর জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংকের একটি হিসাব নম্বর দেওয়া হতো।

এছাড়াও, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেনের নামেও ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে সে দীর্ঘদিন ধরে একইভাবে প্রতারণা করে আসছিলো। ওই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে প্রায় চার থেকে পাঁচশ’ শিক্ষক ও শিক্ষা সচিবের বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে যোগাযোগ করে পরিচিতজনদের অসুস্থতা ও অপারেশনের কথা বলে অনুদান চেয়ে প্রতারণা করে আসছিলো। তার প্রতারণার শিকার হয়েছেন বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের সদস্য থেকে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এমনকি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কর্মরত ব্যক্তিরাও। অনুদান নেওয়ার জন্য সে একটি ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বর ব্যবহার করতো।

তদন্তে দেখা যায়, সরল বিশ্বাসে শিক্ষকরা তাকে সত্যিকারের শিক্ষা সচিব ভেবে বিকাশের মাধ্যমে লক্ষাধিক টাকা পাঠিয়েছেন। এছাড়াও সার্টিফিকেট পরিবর্তন করে দেওয়া, লোভনীয় জায়গায় পোস্টিং, পদোন্নতি, পরীক্ষার ফল পরিবর্তন, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা ইত্যাদির প্রলোভন দেখিয়েও সে হাতিয়ে নিয়েছে লাখ লাখ টাকা।

অভিযুক্ত রেজওয়ানুল হকের বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার মদনখালি গ্রামে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারণার অভিযোগ স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

র‍্যাব কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, অভিযুক্ত প্রতারকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *