১৯৯৪ সালে মাগুরা নির্বাচনে ভোট ডাকাতি হয়েছিল:হানিফ

রাজনীতি

মাগুরা সংবাদঃ

জনগণ যে বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে সেটি প্রমাণ হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ। তিনি বলেন, বিএনপি এই ফলকে প্রত্যাখ্যান করবে কি করবে না সেটি তাদের বিষয়।

মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় কুষ্টিয়ায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

হানিফ বলেন, বিএনপি যতবারই ভোটে অংশগ্রহণ করেছে, জনগণ দ্বারা প্রত্যাখ্যাত হচ্ছে কারণ এই দলটি ক্ষমতাই থাকতে জনবিরোধী কাজ করেছে, দেশবিরোধী কাজ করেছে। উন্নয়ন অগ্রগতির বিরুদ্ধে কাজ করেছে ক্ষমতার বাইরে থেকেও। সার্বিকভাবে এটি জনবিচ্ছিন্ন দল। অতএব এই দলকে নিয়ে জনগণ আর ভাবছে না। এই দল বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ রাজনীতিতে আর আছে বলে জনগণ আর মনে করে না।

তিনি বলেন, ভোট যারা ভোট ডাকাতি করে এসেছে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে তাদের মুখে এ ধরণের কথা শোভা পায় না। মির্জা ফকরুল সাহেবের দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান, দেশে প্রথম ভোট ডাকাতির রাজনীতি শুরু করেছেন। হা-না ভোট করেছেন। কোথাও কোথাও ১২০% হ্যা ভোট পড়েছিল- সেটি দেশবাসী জানে। ১৯৯৪ সালে মাগুরা উপ-নির্বাচনে যে ভোট ডাকাতি করেছিল, সেটি বাংলাদেশের ইতিহাসের এক অংশ হয়ে রয়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি এক কোটি ৩০ লাখ ভুয়া ভোটার বানিয়ে কারচুপির মাধ্যমে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চেয়েছিল। আজিজ মার্কা নির্বাচন কমিশন বানিয়েছিল। ভোট নিয়ে এতগুলো অপকর্ম যারা করেছে, তাদের মুখে ভোট নিয়ে কোন কথা জনগণ শুনতে চায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *