টানা চারদিন অনশন,প্রেমিককে বিয়ে করেই ছাড়লেন মাগুরার এক তরুণী

শালিখা

মাগুরা সংবাদঃ

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে টানা চারদিন অনশন করে অবশেষে প্রেমিক মিঠুন মন্ডলকে বিয়ে করেই ছাড়লেন এক তরুণী। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঝিনাইদহের বামনাইলে স্থানীয় মাতব্বরদের উপস্থিতিতে মন্দিরে তাদের বিয়ে হয়।

ওই তরুণী বলেন, আমার বাড়ি মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার বাকলবাড়িয়া গ্রামে। দীর্ঘ চার বছর ধরে মিঠুনের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক চলছে। আমাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে সে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে তোলে। আমাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হতো মিঠুন।

গত শুক্রবার বিকেলে ফুরসন্ধি ইউনিয়নের বামনাইল গ্রামের বিমল মন্ডলের ছেলে মিঠুন মন্ডলের বাড়িতে আসেন তার প্রেমিকা। এ সময় কৌশলে প্রেমিকাকে ওই বাড়িতে রেখে পালিয়ে যান মিঠুন। তারপর থেকে বিয়ের দাবিতে মিঠুন মন্ডলের বাড়িতে অনশন শুরু করেন ওই তরুণী। এক পর্যায়ে মিঠুন মন্ডল বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দেন তিনি।

এ বিষয়ে দফায় দফায় ওয়ার্ড ইউপি সদস্যসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সমঝোতার বৈঠক হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রেমিক মিঠুন মন্ডলকে পাওয়া না যাওয়ায় স্থানীয়দের পক্ষ থেকে তার পরিবারের জিম্মায় রাখা হয় তরুণীকে। তিন দিন পর সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় মিঠুন বাড়িতে এলে সামাজিকভাবে স্থানীয় মন্দিরে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *