২৭০ পরিবারকে ত্রান সামগ্রী দিলেন মাগুরার যুগ্ম জেলা জজ শাজাহান আলী শিপন

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদ :

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে দেশে চলছে লকডাউন। গণপরিবহনসহ বন্ধ রয়েছে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান। করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসনকে সহায়তা করতে কাজ করছে সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ফলে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ।

এসব কর্মহীন মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিতে কাজ করছে সরকারসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ। ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার শিতলী গ্রামে কর্মহীন হয়ে পড়া ওইসব হতদরিদ্র মানুষকে সহায়তা করতে এগিয়ে এসেছেন ওই গ্রামের যুবসমাজ।

শুক্রবার তারা গ্রামের ২৭০ পরিবারকে দিয়েছেন খাদ্য সহায়তা। ওই গ্রামের কৃতি সন্তান মাগুরা জেলার যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মোঃ শাজাহান আলী শিপন, মেহেরপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আহমেদ আলী, ব্যাংকার শামীম রেজা ও আবু সাঈদ এর উদ্যোগে প্রাণঘাতী করোনা প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া রিক্সা চালক, চা বিক্রেতা, দিনমজুরসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার অসহায় মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে এ খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয়।

যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ শাজাহান আলী শিপন জানান, গ্রামের কৃতি সন্তান নওয়াপাড়া গ্রুপের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান বকুল জোয়ার্দ্দার, আমেরিকা প্রবাসী মাহমুদুর রহমান রাসেল জোয়ার্দ্দার, ফ্রান্স প্রবাসী মাজেদুর রহমান শিলু, আব্দুস সালাম, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিমিটেড এর নির্বাহী পরিচালক শফিকুর রহমান ফিটু,

ব্যবসায়ী সাজেদুর রহমান সেন্টু, মতিউল ইসলাম সোনা জোয়ার্দ্দার, ইম্পেরিয়াল ডেভেলপমেন্ট এণ্ড হোল্ডিংস লিমিটেড এর চেয়ারম্যান আসাদুর রহমান জোয়ার্দ্দার, ব্যাংকার শামীম রেজা, আবু সাঈদ, সমাজসেবক আব্দুর রউফ জোয়ার্দ্দার, ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলাম তুহিন, মশিউল আলম, বেসরকরী চাকুরিজীবি মারুফ হোসেন বিজন,

ইতালী প্রবাসী সামিরুল ইসলামসহ প্রায় ৮০ জন দানশীল ব্যক্তিদের সহায়তায় করোনা প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় ২৭০ পরিবারকে ১০ কেজি চাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি পেয়াজ, ১লিটার তেল ও ১ কেজি লবণ খাদ্য সহায়তা হিসেবে দেওয়া হয়েছে। এ সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মশিউর রহমান জোয়ার্দ্দার, সমাজসেবক হাজী বিশারত আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, সমাজসেবক শাহাজান আলী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *