ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া মরদেহটি মাগুরার রিনা খাতুনের

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদঃ

ময়মনসিংহের ত্রিশালে চেলেরঘাট সেতুর নিচ থেকে উদ্ধার হওয়া মরদেহটি রিনা খাতুন নামে এক গৃহবধূর।

রিনা খাতুন মাগুরা সদর উপজেলার খানপুরের গ্রামের মো. মুরাদ মোল্লার মেয়ে।মরদেহ উদ্ধার হওয়ার পর শুক্রবার মামলা করেছেন মুরাদ মোল্লা। পরিবারের অভিযোগে বলা হয়, দাম্পত্য কলহের জের ধরেই তাকে খুন করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলে হয়, রিনা সাত বছর ধরে ঢাকায় গার্মেন্টসের শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। এখানে কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের মো. রুবেলের সঙ্গে প্রেম হয় এবং চার বছর আগে বিয়েও করেন তারা। বিয়ের তিন বছর পর জানতে পারেন রুবেল আগে থেকেই বিবাহিত। রিনা এ বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি এবং আট মাস আগে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিচ্ছেদের পর থেকেই রিনাকে প্রাণনাশসহ বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছিলেন রুবেল। এজাহারে আরো বলা হয়, বুধবার বিকেলে নিজেদের মধ্যে বিরোধের মীমাংসার কথা বলে রিনাকে বাসা থেকে নিয়ে আসে। পরে শ্বাসরোধে হত্যা করে,এবং মরদেহ খিরো নদের পাড়ে ফেলে দেন।

ত্রিশাল থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার সকালে খিরো নদের চেলেরঘাট সেতুর নিচ থেকে রিনা খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহের ঠোঁটের উপরে ও নিচে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ময়না তদন্ত শেষে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় রিনার বাবা মামলা করেছেন। আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *