দুই পা কেটেও শেষ রক্ষা হলো না মহম্মদপুরের ইদ্রিসের

মহম্মদপুর

মাগুরা সংবাদঃ

রাজধানীর গাবতলী রাস্তা পারাপার হতে গিয়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনার স্বীকার হন ইদ্রিস (৩৫) নামের এক ব্যাক্তি।গত (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকা উওর সিটি করর্পোরেশেনের একটি ময়লার গাড়ি ইদ্রিসকে চাপা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত ইদ্রিস মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার উরুড়া গ্রামের হাশেম বিশ্বাসের ছেলে।দুর্ঘটনার পর দ্রুত ইদ্রিসকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।ভর্তির পর প্রথমে ইদ্রিসের পায়ের অপারেশন করা হয়।কিন্তু অপারেশনের পর পায়ে পচন ধরলে বাঁচানোর তাগিতে তাঁর দুটি পা কেটে ফেলা হয়। কিন্তু এরপরও ইদ্রিসকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। আজ শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১২ টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহতের ছোট ভাই (বাংলা কলেজে অধ্যয়নরত) ইউসুফ বিশ্বাস মাগুরা সংবাদকে জানান, গত ১৬ সেপ্টেম্বর গাবতলী বাসটার্মিনালে রাস্তা পারাপারের সময় ঢাকা মহানগর উওর সিটি করর্পোরেশনের একটি ময়লার গাড়ি আমার ভাইয়ের পায়ের উপর উঠিয়ে দেয়। এতে তার দুটি পায়ের একটি দ্বিখন্ডিত হয়,আরেকটি পা থেকে মাংসপিন্ড ঝড়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করে।

পরিবারের দাবি, সঠিক চিকিৎসা না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার পঁচে যাওয়া পা কেটে ফেলা হয় ইদ্রিসের।

গাবতলী থানার উপ পরিদর্শক মো. কাউসার মাগুরা সংবাদকে জানান, উক্ত ঘটনায় ঘাতক গাড়িটি আটক করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *