শ্রীপুরে টার্গেট ছিল মাদক ব্যবসায়ী ফারুক ও সোহেল:কিন্তু কেন দৌড় দিল আমিরুল

শ্রীপুর

মাগুরা সংবাদঃ

মাগুরার শ্রীপুরে নদীতে লাফিয়ে পড়ে নিখোঁজের একদিন পর আওয়ামী লীগ নেতা আমিরুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। বুধবার (৭ আগস্ট) সকাল ১০টার দিকে কুমার নদীতে নিখোঁজ হওয়া ওই আওয়ামী লীগ নেতার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে তিনি নদীতে ঝাঁপ দিয়েছিলেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে জানা যায়।কিন্তু প্রশ্ন হল সেইদিন শ্রীপুর উপজেলার  শ্রীকোল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম কেন দৌড় দিয়েছিলেন ।পরবর্তীতে জানা যায়,আমিরুলের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় ৩ টি মামলা ছিল। তিনি এই ৩ মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে দৌড় দিয়ে নদীতে ঝাপ দিয়েছিলেন বলে ধারনা করা হচ্ছে ।অথচ ডিবি পুলিশ ওইদিন সোর্সের ইনফরমেশন অনুযায়ী মাদক ব্যবসায়ী ফারুক ও সোহেলকে ধরতে গিয়েছিলেন।আমিরুলের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মামলা থাকার বিষয়ে তারা কোন রকম অবগত ছিল না ।

এ ব্যাপারে মাগুরা ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন মাগুরা সংবাদকে জানান, “ফারুক ও সোহেল নামে চিহ্নিত দুই মাদক ব্যবসায়ী বাজারে অবস্থান করছে এমন খবর পেয়ে সেখানে যাই। আমাদের দেখে কেউ দৌঁড়ে পানিতে লাফ দিয়েছে কি না তা আমাদের জানা নেই।আর আমরা আমিরুলকে চিনতামও না ।আর বিশেষ কোন নির্দেশনা ছাড়া আমরা থানায় রেকর্ডকৃত কোন নিয়মিত আসামী গ্রেফতার করি না ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *