মহম্মদপুরের রাজবাড়ি এখন রাজ হাঁসের বাড়ি

মহম্মদপুর

মাগুরা সংবাদঃ

মাগুরার প্রামাণ্য ইতিহাসের নায়ক ভূষণা তথা মহম্মদপুরের রাজা সীতারাম রায়। বাংলার যে সমস্ত খ্যাতনামা জমিদার দেশের স্বাধীনতা রক্ষার্থে ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন তৎমধ্যে মহম্মদপুরের রাজা সীতারাম রায় ছিলেন অন্যতম।রাজা সীতারাম রায়ের প্রাসাদ-দুর্গ বাংলাদেশের মাগুরা সদর উপজেলা থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে মধুমতী নদীর তীরের একটি প্রত্নস্থান যা স্থানীয়ভাবে রাজবাড়ী পরিচিত, যা সপ্তদশ-অষ্টদশ শতাব্দীতে এখানে পত্তন হওয়া উন্নত এক জনপদের স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। মুর্শিদাবাদের নবাব সরকারের একজন আমলা সীতারাম রায় এ প্রাসাদ-দূর্গটি নির্মাণ করেছেন, যিনি আমলা থেকে জমিদারি এবং পরে স্বীয় প্রতিভাবলে রাজা উপাধি লাভ করেন। সপ্তদশ শতকে নির্মিত এই রাজবাড়িটি এখনও রয়েছে অধের সৌন্দর্যে ভরপুর। এটি মহম্মদপুরে মধুমতি নদীর তীরের ঐতিহাসিক রাজবাড়ি। কিন্তু এখন আর এটি আর নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা হয় না।দিন দিন অবহেলার কারনে রাজবাড়িটি তার প্রত্নতাত্ত্বিক গুরুত্ত হারিয়ে ফেলছে।এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রত্নতাত্ত্বিক বিষয় রক্ষার্থে সংশ্লিষ্ট বিভাগের যেন কোন মাথা ব্যাথা নেই । বৃষ্টির ভিতরে তোলা একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে রাজবাড়িটির সামনের দিকে পানি জমে আছে,আর সেখানে রাজহাঁস ঘুরে বেড়াচ্ছে ।বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় তোলে।কেউআক্ষেপ করে বলেছে, আহা! রে উন্নতি রাজবাড়ীর , আবার কেউ বলেছে রাজবাড়ী এখন রাজ হাস বাড়ি, কেউ বলছে সীতারাম রাজার বাড়ির পরিস্থিতি বেশি ভালো দেখছিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *