মাগুরায় চিকিৎসার নামে চলছে প্রতারণা: ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিকে নোংরা পরিবেশ

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদঃ

মাগুরায় অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক নিয়ন্ত্রণে আসছে না। বরং ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অনুমোদন নিয়েই অনেকে সাজিয়ে বসেছেন হাসপাতাল। মাগুরায় বর্তমানে প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনস্টিক সেন্টার সংখ্যা অসংখ্য ।অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের পাশাপাশি ওই সব সেন্টারে নিয়মনীতি মানা হচ্ছে না। ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয় রোগী। ভাড়া করে আনা হয় চিকিৎসক। ফাঁদে পড়ে নানা হয়রানির শিকার হচ্ছে রোগীরা। মাগুরায় অবস্থিত কয়েকটি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সরেজমিনে গেলে এ চিত্র পাওয়া যায়।

স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জানা যায়, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের জন্য পৃথকভাবে অনুমোদন নেওয়া লাগবে। না নিলে ওই প্রতিষ্ঠানটি অবৈধ।
সরেজমিনে ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গিয়ে দেখা গেছে নোংরা পরিবেশ। ক্লিনিকের অনুমোদন তো নেই, সেই সাথে ডায়াগনস্টিক সেন্টারও খুলে বসেছেন অনেকে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক রোগীর আত্মীয় জানান, একটি অপারেশনে তারা এসেছেন। এর মধ্যে ক্লিনিকে থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। একটু ভেতরে ডিউটি ডাক্তারের রুম। ওখানেই ভর্তি রয়েছে এক রোগী। দিনে সর্বক্ষণ ইলেকট্রিক লাইট জ্বালানো থাকে। বিদ্যুৎ হঠাৎ করে চলে গেলে দিনের বেলায় মনে হবে ঘুটঘুটে অন্ধকার। একটু সামনে গিয়ে দেখা যায়, মেঝেয় বসে কোন রোগীর আত্মীয় খাবার খাচ্ছেন। কোনটা নার্স আর কোনটা রোগী বোঝা মুসকিল। নার্সদের নেই ইউনিফরম। সাদা বিছানা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না করার করার কারণে কালো ও ময়লা দাগ পড়ে আছে। ওখানে বেশির ভাগ রোগী মহম্মদপুর,শালিখা ও শ্রীপুর উপজেলার আশপাশ গ্রামাঞ্চলের। এক্সরে রুমে দেখা গেছে ময়লা ভর্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *