মাগুরার সংকোচখালী গ্রামে সামাজিক দুপক্ষের ব্যাপক মারামারি:গুরুতর আহত ১০

মাগুরা সদর

মাগুরা সংবাদঃ

মতিন রহমানঃ

মাগুরা সদর উপজেলার গোপালগ্রাম ইউনিয়নের সংকোচখালী গ্রামের পুর্বপাড়ায় সামাজিক দুই দলের মারামারি সংঘটিত হয়েছে। শুক্রবার গ্রামের সামাজিক মাতব্বর তৈয়েব খোকন ও পান্না গ্রুপের দলীয় সমর্থিত সিদ্দিক মেম্বারের সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘাতের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায় , শুক্রবার দুপুরে স্থানীয় মসজিদে জুম্মার নামাজ পড়তে আসে দুইপক্ষের লোকেরা।

নামাজ শেষে খোকন মাতব্বর গ্রুপের লোক আয়ুব জোয়ারদারের ছেলে হৃদয়, বাদসা মিয়ার ছেলে নয়ন, খোকনের ছেলে আকাশ সহ অনেকের সঙ্গে পুর্বের জের ধরে হঠাৎ করে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে পান্না গ্রুপের লোক হেলালের ছেলে মামুন, বকুল মোল্যার ছেলে হাসিবুল, বিল্লালের ছেলে ফেরদৌস সহ আরো অনেকে।

উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় উত্তেজিত হলে দুপক্ষের ছেলেদের মধ্যে মারামারি লেগে যায়। এসময় দুপক্ষের লাঠিসোটা, সোড়কি, রামদাসহ কোপাকুপি শুরু হলে উভয় দলের কমপক্ষে ১০ জন মারাত্মক ভাবে আহত হয়।

গুরুতর আহত ব্যাক্তিদেরকে দ্রুত মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে ওই মারামারির সময় পান্না গ্রুপের লোকেরা খোকন গ্রুপের লোকেদের ৪/ ৫ টা বাড়িঘরে হামলা করে বলে জানা যায়।

হামলার বিষয়ে হামলাকৃত বাড়িগুলোর মালিক ওলিয়ার ফকির, আঃ কাদের মিয়া, মোকছেদ মুন্সি, কাসেম মিয়া সহ অনেকের পরিবার পান্নার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। তারা বলেন, হঠাৎ করে পান্না গ্রুপের লোকজন আমাদের বাড়িতে এসে ভাংচুর চালানোর চেষ্টা করে। সেইসঙ্গে হুমকিও দিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন। এসময় ওই সব বাড়িগুলোতে মহিলারা উপস্থিত ছিলো বলে জানা গেছে।

এদিকে সরোজমিনে দেখা গেছে ঘটনার পর থেকে গোটা এলাকার সবার মধ্যে পুনরায় সংঘাতের এক ধরনের আতংক বিরাজ করছে। তবে ওই গ্রামে এখন আইনশৃঙ্খলা ঠিক রাখতে পুলিশি টহল দেখা গেছে।

স্থানীয় শত্রুজিৎপুর পুলিশ ক্যাম্পের এস আই জাফর এবং এ এস আই মোস্তফা কামাল জানান, গ্রাম থেকে কিছু সড়তি উদ্ধার করা হয়েছে সেইসঙ্গে পুনরায় সংঘাত ঠেকাতে পুলিশের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *