ফেরি থেকে পদ্মায় পড়ে ঝিনাইদহ শৈলকুপার শিশু নিখোঁজ

বাংলাদেশ

মাগুরা সংবাদঃ  

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় রুকাইয়া নামের সাড়ে চার বছর বয়সী এক কন্যা শিশু ফেরি থেকে পদ্মা নদীতে পড়ে নিখোঁজ হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া তিন নম্বর ফেরি ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। নিখোঁজ শিশু ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলা শহরের সেলিম রেজার মেয়ে। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস ও মানিকগঞ্জের ডুবুরি ফেরি ঘাটে অনুসন্ধান চালায়। সন্ধ্যা পর্যন্ত শিশুটির হদিস মিলেনি। সন্তান হারিয়ে পদ্মা পাড়ে স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে।

শিশুর বাবা সেলিম রেজা জানান, অসুস্থ শ্যালকের স্ত্রীকে সোমবার রাতে শৈলকুপা থেকে মাইক্রোবাসে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। রাত সোয়া দুইটার দিকে তিন নম্বর ঘাটে ইউটিলিটি ফেরি রজনী গন্ধ্যায় ওঠে। তাদের সঙ্গে অন্যান্য গাড়িও ওঠে। ফেরিতে উঠেই ওয়াশরুমের জন্য শিশুকে নিয়ে মা জেসমিন আক্তার বের হন। তাকে রেখে ওয়াশরুম থেকে ফিরে এসে দেখে রুকাইয়া যেখানে দাঁড়িয়ে ছিল সেখানে নেই।
ফেরিতে থাকা স্থানীয় লোকজন জানান, একটি দূরপাল্লার এসি বাসের ওঠার শব্দে ভয়ে শিশুটি দৌঁড় দিলে পদ্মায় পড়ে যায়। পরে অন্যরা চলে গেলেও তারা ফেরি থেকে নেমে হন্য হয়ে সন্তানকে খুঁজতে থাকে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম বলেন, স্থানীয়দের ভাষ্য অনুযায়ী শিশুটি সম্ভবত ফেরিতে ওঠার আগ মুহুর্তে পন্টুনের উপর থেকে পড়লে এ দুর্ঘটনা ঘটে। কিভাবে শিশুটি পদ্মায় পড়েছে নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না।

ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট লিডার বিল্লাল হোসেন খলিফা বলেন, ভোর থেকে ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। ডুবুরি না থাকায় মানিকগঞ্জ থেকে ডুবুরি আনা হয়েছে। দুপুর পর্যন্ত খোঁজ করেও শিশুটি পাওয়া যায়নি বলে ফিরে যাচ্ছি। শিশুটি শ্রোতে ভেসে যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *