জজ মিয়া নাটক বিএনপি করেনি, করেছে পুলিশ:মাগুরার মনোনয়ন প্রত্যাশী নিতাই রায়

বাংলাদেশ রাজনীতি

মাগুরা সংবাদঃ

 

বিএনপি ’জজ মিয়া নাটক’ করেনি দাবি করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মাগুরার – ২ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী নিতাই রায়  চৌধুরী বলেছেন, ’বিএনপি জজ মিয়া নাটক করতে যাবে কেন? তখনকার আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, তদন্তকারী সংস্থা করেছিল।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে টকশো’তে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ ওই টকশো’তে বলেন, ’দেশের ইতিহাসে দু’টি চাঞ্চল্যকর মামলা বা ঘটনার মধ্যে একটি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা আর অন্যটি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় গ্রেনেড হামলা। দেশের জন্য দুর্ভাগ্য, এই হামলা মামলার রায়ে সর্বোচ্চ গোয়েন্দা সংস্থার ব্যক্তিরা ফাঁসির মঞ্চে দাঁড়িয়ে গেছেন।’
বুধবার রাতের টকশো’টিতে আরও অংশ নেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল মতিন খসরু। সঞ্চালনায় ছিলেন নবনীতা চৌধুরী।
নিতাই রায় চৌধুরী দাবি করেন, ’২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার সুষ্ঠু তদন্ত আমরা চেয়েছি, বিচারও চেয়েছি। তার দুই বছর পরেই বিএনপি ক্ষমতা থেকে গেছে। তাই বিএনপি পূর্ণ তদন্ত শেষ করে যেতে পারেনি। তাই এই হামলায় বিএনপির কর্তাব্যক্তিদের নাম বেরিয়ে এসেছে, এতে অস্বস্তির কিছু নেই।’
বিএনপির এই নেতা বলেন, ’এই রায় নিয়ে বিএনপির মধ্যে কোনো অস্বস্তি নেই। কারণ, গ্রেনেড হামলার রায়টা একটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দেওয়া হয়েছে। তারেক রহমানকে জড়ানো এবং আব্দুস সালাম পিন্টু ও লুৎফুজ্জামান বাবরকে পরে জড়ানো হয়েছে। এফআইআর বা প্রথম চার্জশিটে তারেকের নাম নেই, এমনকি সম্পূরক চার্জশিটেও নেই।’
বিএনপি তখন নিন্দা না জানিয়ে এখন কেন জানাচ্ছে এবং শেখ হাসিনার ভ্যানিটি ব্যাগে গ্রেনেড ছিল বলেও তখন বিএনপি দাবি করেছিল- এমন প্রশ্নে নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, ’তখন খালেদা জিয়া তার কার্যালয়ে সকল তদন্ত কর্মকর্তাকে ডেকে নিজে মনিটরিং করেছিলেন এবং তদন্তে সবার নাম বের করতে বলেছিলেন। এরপরও ১৪ বছর পরে সেটার সাজা হল। তাহলে বিএনপি কিভাবে সেই মামলার বিচার শেষ করত ওই কম সময়ে? গ্রেনেড হামলার এই ঘটনা যেই ঘটাক সেটা নিন্দনীয়। সেটা আওয়ামী লীগ ঘটাক আর বিএনপি ঘটাক। রাষ্ট্রযন্ত্র আর রাজনৈতিক দল দুইটি আলাদা। পার্টির ক্ষমতা কিন্তু রাষ্ট্রযন্ত্রের অংশ না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *